অনলাইন বাংলা সংবাদ পত্র

উইন্ডিজকে ৫ উইকেটে হারিয়ে ফাইনালে বাংলাদেশ

সত্যের সৈনিক অনলাইন: ডাবলিনে উইন্ডিজকে হারিয়ে ফাইনাল নিশ্চিত করেছে বাংলাদেশ। বাংলাদেশের হয়ে ব্যাট হাতে জয়ে অবদান রেখেছেন মুশফিকুর রহিম ও সৌম্য সরকার। ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ ৬৩ রান করেন মুশফিক।

ত্রিদেশীয় সিরিজে উইন্ডিজ স্বাগতিক আয়ারল্যান্ডকে হারিয়ে ফাইনাল নিশ্চিত করেছে আগেই। ফাইনাল নিশ্চিতে সিরিজে নিজেদের তৃতীয় ম্যাচে উইন্ডিজের বিপক্ষে মাঠে নামে বাংলাদেশ। বাংলাদেশের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচের মত এই ম্যাচে আগে টস জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন উইন্ডিজ অধিনায়ক জেসন হোল্ডার।

আগে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা ভালো কিছুরই ইঙ্গিত দিচ্ছিলো দুই ওপেনার শেই হোপ ও অ্যামব্রিজ। তবে তাদের জুটি বেশীক্ষণ টিকেনি। ব্যক্তিগত ২৩ রান করে মাশরাফির বলে স্লিপে সৌম্যর হাতে ক্যাচ তুলে দেন অ্যামব্রিজ। উইন্ডিজ শিবিরে দ্বিতীয় আঘাত হানেন মিরাজ। একবার জীবন পাওয়া ড্যারেন ব্রাভো আউট হন তার ক্যাচ মিস করা মিরাজের বলেই। রোস্টন চেজ ও কার্টারও টিকেননি ক্রিজে।

দুইজনকেই আউট করেন মুস্তাফিজ। তবে অন্যপাশ থেকে ধরে রেখেছেন হোপ। হোল্ডারের সঙ্গে ১০০ রানের জুটি গড়ে ভালো স্কোরের ইঙ্গিত দেন। ফিফটি হাঁকান দুই ব্যাটসম্যানই। সেঞ্চুরির কাছে গিয়েও সেঞ্চুরি করতে পারেননি হোপ। ৮৭ রানে মাশরাফির বলে আউট হন হোপ।তাদের বিদায়ের পর ৬২ রান করে মাশরাফির বলে আউট হন হোল্ডার। শেষ পর্যন্ত নার্সের ১৪ রানে ২৪৭ রান সংগ্রহ করে উইন্ডিজ। ৪টি মুস্তাফিজ ও ৩টি উইকেট পান মাশরাফি।

উইন্ডিজের দেওয়া লক্ষ্যে ব্যাটিং করতে নেমে এইবার বাংলাদেশকে ভালো শুরু এনে দেন দুই ওপেনার তামিম ও সৌম্য। তবে দুইজনেই জুটি ভাঙে দলীয় ৫৪ রানে। আগের ম্যাচে দারুণ ব্যাট করা তামিম আউট হন ২১ রানে। সাকিব-সৌম্য মিলে কিছুটা প্রতিরোধ গড়ার চেষ্টা করেন। আগের ম্যাচের মত এই ম্যাচেও ফিফটি হাঁকান সৌম্য। ব্যক্তিগত ২৯ রান করে নার্সের বলে আউট হন সাকিব। তার বিদায়ের পরপরই আউট হন ৫৪ রান করা সৌম্য।

১০৭ রানে ৩ উইকেট পড়লে দলের হাল ধরেন মুশফিক ও মিঠুন। দুইজনেই বেশ দায়িত্ব নিতে ব্যাটিং করেন। মুশফিক ও মিঠুনের দায়িত্বশীল ব্যাটিং দলকে জয়ের দিকেই এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছিলো। দুইজন মিলে গড়েন ৮৩ রানের জুটি। কয়েকবার জীবন পেয়েও ফিফটি করতে পারেননি মিঠুন। আউট হন ৪৩ করে। দলের জয়ের কাজটা আরও সহজ করে দেন মুশফিক-মাহমুদউল্লাহ জুটি।

দুইজনেই দলকে জয়ের বন্দরে পৌঁছে দেন। এরই মাঝে ফিফটি তুলে নেন মুশফিক। তবে ম্যাচ শেষ করে আসতে পারেননি মুশফিক। ৬৩ রান করে আউট হন তিনি। শেষ পর্যন্ত মাহমুদউল্লাহর অপরাজিত ৩০ রানে ৫ উইকেটের জয় তুলে নেয় বাংলাদেশ।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:
উইন্ডিজ: (৫০ ওভার) ২৪৭/৯
হোপ ৮৭, হোল্ডার ৬২, অ্যামব্রিস ২৩, চেজ ১৯, নার্স ১৪।
মুস্তাফিজ ৯-১-৪৩-৪, মাশরাফি ১০-০-৬০-৩, সাকিব ১০-১-২৭-১, মিরাজ ১০-০-৪১-১, রাহী ৯-০৫৬-০, সৌম্য ২-০-১৫-০।

বাংলাদেশ:  (৪৭.২ ওভার) ২৪৮/৫

তামিম ২১, সৌমো ৫৪, সাকিব ২৯, মুশফিকুর ৬৩  , মিথুন ৪৩ , মাহামুদউল্লাহ ৩০*  সাব্বির ০*

নুরসি ৫৩/৩ , হোল্ডার ৪৩/১

১৩ মে ২০১৯ / সত্যের সৈনিক / এমএসআইএস

Leave A Reply

Your email address will not be published.