অনলাইন বাংলা সংবাদ পত্র

প্রথম টেস্ট জয়ের ১৩ বছর পূর্তি আজ

সত্যের সৈনিক অনলাইন : ১০ জানুয়ারি, প্রথম টেস্ট জয়ের দিন। এই দিনেই প্রথম টেস্ট জয়ের স্বাদ পেয়েছিল গোটা বাংলাদেশ। তাই তো আজ ক্রিকেটের এক ঐতিহাসিক দিন। দীর্ঘ প্রতীক্ষার অবসান ঘটিয়ে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ২২৬ রানের বড় ব্যবধানে হারিয়ে প্রথম জয় পায় টাইগাররা ।

২০০০ সালের ১৩ নভেম্বর ভারতের বিপক্ষে টেস্ট অভিষেকেই প্রথম ইনিংসে ৪০০ রানের বড় এক পুঁজি গড়েছিল বাংলাদেশ। আমিনুল ইসলাম বুলবুল অভিষেক ম্যাচেই ১৪৫ রানের এক ইনিংস খেলে নাম তুলেন ইতিহাসের পাতায়। যদিও দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটিং ব্যর্থতার কারনে ম্যাচটি হারতে হয়। এভাবেই কেটে যায় পাঁচ বছর।

অপেক্ষার প্রহর শেষ হয় ২০০৫ সালের ১০ জানুয়ারি। জিম্বাবুয়ের বোলিং আক্রমণ সামলে ৪৮৮ রানের পাহাড়সমান পুঁজি দাঁড় করায় টাইগাররা। অধিনায়ক হাবিবুল বাশার করেন ৯৪ রান, রাজিন সালেহ ৮৯। জবাব দিতে নেমে মোহাম্মদ রফিকের ঘুর্ণি আর মাশরাফি বিন মর্তুজার গতিতে ৩১২ রানেই গুটিয়ে যায় জিম্বাবুয়ের প্রথম ইনিংস। রফিক ৬৫ রানে ৫টি, মাশরাফি ৫৯ রানে নেন ৩ উইকেট। ১৭৬ রানের বড় ব্যবধানে এগিয়ে থাকা বাংলাদেশ দ্বিতীয় ইনিংসে তাড়াহুড়ো করে ৯ উইকেটে ২০৪ রান তুলে ইনিংস ঘোষণা করে দেয়। এবারও হাবিবুল বাশার খেলেন ৫৫ রানের গুরুত্বপূর্ণ এক ইনিংস। জিম্বাবুয়ের সামনে জয়ের লক্ষ্য দাঁড়ায় ৩৮১ রানের। লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে এনামুল হক জুনিয়রের বোলিং তোপে পড়ে জিম্বাবুয়ে। বাঁহাতি এই পেসার একাই ৬ উইকেট নিয়ে সফরকারিদের গুটিয়ে দেন ১৫৪ রানে। মাশরাফি আর তাপস বৈশ্য নেন ২টি করে উইকেট। ফলে ২২৬ রানের বিশাল জয় বাংলাদেশ।

প্রথম টেস্ট জয়ের পর উজ্জীবিত বাংলাদেশ টেস্ট ইতিহাসে নিজেদের প্রথম সিরিজ জয়ও পায় ওই সিরিজে। দ্বিতীয় টেস্টে ড্র করে ১-০ ব্যবধানে সিরিজ জিতে নেয় হাবিবুল বাশারের দল।

১০ জানুয়ারি ২০১৮/সত্যের সৈনিক/তুহিন রানা

Leave A Reply

Your email address will not be published.