ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন মত প্রকাশের স্বাধীনতা হরনের জন্য নয়-জয়

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

মোঃ জহিরুল ইসলাম, ঢাকাঃ ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন মত প্রকাশের স্বাধীনতা হরনের জন্য করা হইনি, বরং সংখ্যালঘুদের বিরুদ্ধে বিদ্বেষ ও সাইবার স্পেসে বিভ্রান্তি ছড়ানো বন্ধেই এই আইন করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর প্রযুক্তি উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়।

আজ রোববার রাজধানীর একটি হোটেলে বিজনেস প্রোসেস আউট সোর্সিং (বিপিও) সামিটের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন সজীব ওয়াজেদ জয়।
পড়ালেখা শেষ করে দেশের তরুণ প্রজন্মকে সরকারি চাকরির জন্য অপেক্ষা করার দরকার নেই, কারণ অসংখ্য চাকরি নিয়ে তথ্যপ্রযুক্তি (আইটি) খাত অপেক্ষা করছে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তিবিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়।

সজীব ওয়াজেদ জয় বলেন, ‘বাংলাদেশ সরকারের সিভিল সার্ভিস প্রতিবছর মাত্র তিন থেকে চার হাজার মানুষকে চাকরি দেয়। এটা সংখ্যায় স্বল্প। আমরা এর চেয়ে বেশি নিচ্ছি আমাদের তথ্যপ্রযুক্তি খাতে।’

অনুষ্ঠানে বিভিন্ন সময় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমের অপব্যবহার করে মৌলবাদী শক্তিকে উসকে দেওয়া কিংবা সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের ওপর হামলার প্রসঙ্গ টেনে সজীব ওয়াজেদ বলেন, ‘স্বাধীন মত প্রকাশ বন্ধ করার জন্য নয়, বরং সংখ্যালঘুদের রক্ষা এবং বিভ্রান্তি ছড়ানো বন্ধের জন্যই ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন করা হয়েছে।’

সজীব ওয়াজেদ জয় বলেন, ‘যদি কোনো বক্তব্য সহিংসতা সৃষ্টি করে, বিশেষ করে সংখ্যালঘুদের ক্ষেত্রে, তাহলে ওই বক্তব্যকে স্বাধীনভাবে চলতে দেওয়া যায় না।’

তৃতীয়বারের মতো আয়োজিত দুদিনব্যাপী বিপিও সম্মেলনে কর্মশালাসহ ১১টি সেমিনার অনুষ্ঠিত হবে, যেখানে দেশি-বিদেশি শতাধিক বক্তা অংশ নেবেন।

১৫ এপ্রিল ২০১৮/সত্যের সৈনিক/সুলতান মাহমুদ

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

Leave A Reply

Your email address will not be published.