অনলাইন বাংলা সংবাদ পত্র

রোববার খালেদার চিকিৎসার দাবিতে দেশজুড়ে বিক্ষোভ

বিএনপি  কারাগারে  খালেদা জিয়ার সুচিকিৎসার দাবিতে রোববার দেশজুড়ে প্রতিবাদ কর্মসূচি দিয়েছে

 

পুরান ঢাকার কেন্দ্রীয় কারাগারে শুক্রবার বিকালে খালেদা জিয়ার সঙ্গে তার পরিবারের সদস্যরা দেখা করার পর রাতে দলের জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী এই কর্মসূচি ঘোষণা করেন।

রিজভী  বলেন, “নিকট আত্মীয়রা আজকে দেশনেত্রীর সাথে সাক্ষাৎ শেষে তার (খালেদা জিয়া) সম্পর্কে যে বর্ণনা দেন তা শুধু মর্মস্পর্শীই নয়, হৃদয়বিদারক। তারা বলেছেন, গত ৫ জুন দেশনেত্রী দাঁড়িয়ে থাকা অবস্থায় মাথা ঘুরে পড়ে গিয়েছিলেন, তিন সপ্তাহ যাবত তিনি ভীষণ জ্বরে ভুগছেন যা কোনো ক্রমেই থামছে না।

দলীয় প্রধানের শারিরীক অবস্থা তুলে ধরে রিজভী বলেন, “কারাগারে দেশনেত্রীর জ্বর থামছে না। চিকিৎসা বিদ্যায় এটিকে ট্রানজিয়েন্ট স্কিমিক অ্যাটাক (টিআইএ) বলা হয়। তার দুটো পা এখনো ফুলে আছে তিনি তার শরীরের ভরসাম্য রক্ষা করতে পারছেন না।

এর আগে বিকালে পুরান ঢাকার কারাগারে খালেদা জিয়ার মেজ বোন ও ছোট ভাইয়ের স্বজনরা সাক্ষাৎ করেন।

“তার অসুস্থতা নিয়ে ইতোপূর্বে যে কথাগুলো বলা হয়েছে, তা নিয়ে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হলে তার স্বাস্থ্যের এতটা অবনতি হতো না। সরকারের ইচ্ছাকৃত অবহেলা ও উদাসীনতার কারণেই দেশনেত্রীর চিকিৎসার ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে না। আমরা মনে করি, সরকার ও সরকারের প্রভাবিত প্রশাসনযন্ত্র দেশনেত্রীকে নিয়ে কোনো গভীর ষড়যন্ত্রে লিপ্ত রয়েছে।

“ কোনো পদক্ষেপ নেই, কোনো প্রতিকার নেই কারা কর্তৃপক্ষ ও সরকারের পক্ষ থেকে। সরকারের এহেন নিমর্ম আচরণের আমরা ধিক্কার জানাই।”

বিএনপি চেয়ারপারসনের সুচিকিৎসার দাবিতে রোববার সারাদেশে জেলা-মহানগরে ও ঢাকায় থানায় থানায় প্রতিবাদ কর্মসূচি ঘোষণা করেন রিজভী।

নয়া পল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে জরুরি এই সংবাদ সম্মেলনে দলের ভাইস চেয়ারম্যান অধ্যাপক এজেডএম জাহিদ হোসেন, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য আব্দুল কুদ্দুস, সিরাজউদ্দিন আহমেদ, কেন্দ্রীয় নেতা,আসাদুল করীম শাহিন, তাইফুল ইসলাম টিপু ও শাহিন শওকত উপস্থিত ছিলেন।

 

অবিলম্বে খালেদা জিয়াকে তার ব্যক্তিগত চিকিৎসকদের দিয়ে সুচিকিৎসার দাবি জানান রিজভী।

৯ জুন  ২০১৮/সত্যের সৈনিক/ মোহাম্মদ রেজওয়ান

Leave A Reply

Your email address will not be published.