অনলাইন বাংলা সংবাদ পত্র

ট্রেনে প্রতিদিনই প্রচণ্ড চাপ, সাথে অনিয়ম

মমিনুল মমিন, ময়মনসিংহ : কর্মবব্যস্ততা আর সৌখিনতা দুটোর সমষ্টিতে প্রতিনিয়ত ট্রেনে সমাগম ময়মনসিংহ, গফরগাঁও, জামালপুরের বেশির ভাগ মানুষ। উন্নত বাস আর বিলাসবহুল ট্রেনের টিকেটের মূল্য বেশি হওয়ায় “কমিউটার” ট্রেনগুলোতে প্রতিদিনই এমন চিত্র দেখা যায় ময়মনসিংহ, গফরগাঁও, জামালপুরের রেলওয়ে স্টেশন পাড়ায়।

প্রতিদিন ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা আর জামালপুর থেকে ঢাকাগামী ট্রেনের সংখ্যা এ রুটে ১০ থেকে ১২টা থাকলেও এ অঞ্চলের মানুষের প্রিয় ট্রেন “কমিউটার” ট্রেনখানা। কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে যায় প্রতিটি বগি । বাদ পড়ে না ট্রেনের ছাদ, দরজার কোণ। পা রাখার জায়গা থাকে না। আবার ছাদে উঠতে গেলে মই বাহিনী (এক ধরণের ব্যবসায়ী) নিচ্ছে প্রতিমাথা ১০ টাকা করে।

নির্ধারিত ভাড়া থেকে অধিক বাসভাড়া নেওয়া হয় বলেই ট্রেনটি স্বাচ্ছন্দ্যে বেছে নিয়েছে এঅঞ্চলের মানুষেরা।

সরকারী ট্রেনও আছে আর ট্রেনের সিটও আছে কিন্তু টিকেট পাওয়া আর সোনার হরিণ পাওয়া যেন একই কথা। সপ্তাহের আগে থেকেই বিক্রি হয়ে যায় সব টিকেট কিন্তু এ সব টিকেট নেয় কে? গভীর প্রশ্ন ভুক্তভোগী মানুষের। আর স্বীয় দায়িত্বে থাকা কতৃপক্ষ দায়ভার থেকে যেন লাইনচ্যুত।

ভুক্তভোগীদের চাওয়া একটা এর একটা সঠিক সমাধান হোক। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষই পারে সঠিক সমাধান দিতে আর আঞ্চলিক মানুষদের ভোগান্তি কমিয়ে সুষ্ঠু জনজীবন ও নিরাপদ আনন্দভ্রমণ টিকিয়ে রাখতে।

২৪সেপ্টেম্বর ২০১৮,সত্যের সৈনিক/ ময়না মনিরা

Leave A Reply

Your email address will not be published.